আনাপান স্মৃতি ভাবনার উপকারিতা কি।

আনাপান স্মৃতি ভাবনা নির্বাণে পৌঁছে দেয় আলোচনায় ভদন্ত  পঞ্ঞাদীপ ভিক্খু মহোদয়। 

আনাপান স্মৃতি ভাবনার উপকারিতা।


আনাপান স্মৃতি করে থাকলে ০৩টি দৃষ্টি ছিন্ন হয়। দৃষ্টিছিন্ন আনাপান স্মৃতি সবল বিদর্শন কর্মস্থান ভাবনা নির্বাণ পর্যন্ত পৌঁছে দেয়।

আনাপান স্মৃতি করলে দৃষ্টি কিভাবে ছিন্ন হয় ? 
আন বা আশ্বাস বায়ু নাকের ডগায় স্পর্শের পর ব্যয় হয়ে যায়। অপান বা প্রশ্বাস বায়ুও নাকের ডগায় স্পর্শের পর ব্যয় হয়ে যায়। এ ব্যয়কে যতবার দর্শন হবে ততবার রূপ-নামের প্রতি নিত্য ধারণা করা শাশ্বত দৃষ্টি ছিন্ন হয়।

আনপান বায়ু হল রূপ। জানার মনটা নাম (বেদনা, সংজ্ঞা, সংস্কার, বিজ্ঞাণ)। রূপ-নাম সমষ্টিকে আমি আমার নারীপুরুষ ব্যক্তি ধারণা করার সৎকায়দৃষ্টি ছিন্ন হয়।

আন বা আশ্বাস বায়ু ব্যয় হবার পর পান বা প্রশ্বাস বায়ু উৎপন্ন হয় এ উৎপন্নকে জানলে পুনজন্ম অবিশ্বাস উচ্ছেদদৃষ্টি ছিন্ন হয়।

রূপ-নামগুলো একেকটি করে উৎপন্ন হয়ে ব্যয় হয়। আরেকটি উৎপন্ন হয়; ব্যয় হয়। একও নয় ভিন্নও নয় একের কারণে অন্যটি ধর্মতঃ নিয়মে উৎপন্ন হয়ে ব্যয় হয়ে (অবিচ্ছিন্ন কারণ+ফল প্রবাহ) থাকে বলে জানার ফলে বিচিকিৎসা (সংশয়) মুক্ত হয়।

তাই এ আনপান স্মৃতি নির্বানকে প্রত্যক্ষ কাজে খুবি উপযোগী। ভাবনা করা কালে কোনটিকে স্মৃতি করবো এ চিন্তা করা কোন কারণ নেই। মায়ের গর্ভ হতে জন্মের পর থেকে মৃত্যুর পর্যন্ত নিজের সাথে থাকা আনাপান বায়ুকেই স্মৃতি করা। শয়নে গমনে উপবেসনে দাঁড়ানে এ চার ঈর্যাপদেও এটিকে স্মৃতি করা যায়।

অন্য গুলোকে স্মৃতি করা যায় না? 
হ্যাঁ, অবশ্যই করা যায়। সাড়ে তিনহাত শরীর বা ষড়ায়তনে যখন যে রূপ-নাম উৎপন্ন হবে সেগুলোকেও স্মৃতি করতে হয়। এ স্মৃতিতে রূপ-নামকে উদয় দর্শন হলে "উচ্ছেদদৃষ্টি" ছিন্ন হয়। ব্যয়কে দর্শন হলে শাশ্বতদৃষ্টি ছিন্ন হয়। রূপ-নাম উদয় হয়ে রূপ-নাম ব্যয় হয় বলে দর্শনজ্ঞান উৎপন্ন হলে সৎকায়দৃষ্টি (আত্ম আমিত্ব দৃষ্টি) ছিন্ন হয়।

ষড়ায়তনে কোনটিও উৎপন্ন না হলে আনপানকে স্মৃতি করে থাকা। ষড়ায়তনে রূপ-নাম উৎপন্ন হলে সেই ক্ষণমুহুর্তে উৎপন্ন রূপ-নামকে উৎপন্ন স্থানে স্মৃতি দিয়ে জেনে নেওয়া।

পূর্বে উৎপন্ন রূপ-নামটা ভাবনার বিষয়, পরে সেটিকে জানাটা অনুশীলন জ্ঞান। এ স্মৃতিমার্গ জ্ঞান দিয়ে দর্শন করে থাকলে রূপ-নামে জমে থাকা মিথ্যাদৃষ্টি ছিন্ন হয়ে দৃষ্টিমুক্ত স্রোতাপন্ন হয়। সবার এ আনপান স্মৃতির দ্বারা পঞ্চস্কন্ধে আর্যসত্য জ্ঞান উৎপন্ন হয়ে নির্বানকে প্রত্যক্ষ করার সক্ষম হোক।

লেখক-
স্বধর্ম দেশক, বিদর্শন আচার্য 
ভদন্ত পঞ্ঞাদীপ থের
রাঙ্গামাটি।

Comments

Popular posts from this blog

জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ কি জেনে রাখুন।

মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহারে সচেতনতা ও করণীয় কি।

ফেসবুক বা অনলাইনে হয়রানির শিকার হলে কি করবেন।